http://shamsfood.com/

এরশাদের স্ত্রী-বান্ধবীরা এখন কে কোথায়? শেষ বেলায় নিঃস্ব !

ডেস্ক:: জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বর্তমানে শারীরিকভাবে অসুস্থ। তার সহায়-সম্পত্তি কে কতটুকু পাবেন তা নিয়ে চলছে নানা জল্পনা-কল্পনা।

এরশাদের বৈধ স্ত্রী কতজন, আর বান্ধবী বা প্রেমিকাই কতজন তা নিয়েও আছে নানা আলোচনা। সাবেক এই স্বৈরাশাসকের জীবনে যে একাধিক নারী এসেছেন এ খবর মোটামুটি ওপেন সিক্রেট।

চলুন দেখে নিই এরশাদের স্ত্রী-প্রেমিকাদের হাল হকিকত-

মেরি
এরশাদ আশির দশকে মেরি নামের এক নারীকে গোপনে বিয়ে করেছিলেন বলে শোনা যায়। যদিও মেরিকে জনসমক্ষে খুব কমই দেখা গেছে। এরশাদ নিজে কখনো এই বিয়ের কথা স্বীকারও করেননি।

কথিত আছে, এরশাদ তার শাসনামলে যে বিপুল অংকের সম্পদ গড়ে তুলেছিলেন তার কিছুটা তিনি মেরিকে দিয়েছিলেন। এরশাদের ক্ষমতাগ্রহণের বছর দুয়েক পর মেরির সঙ্গে সম্পর্ক ভেঙে যায় তার। বিচ্ছেদের পর মেরিকে লন্ডনে পাঠিয়ে দেওয়া হয় বলে শোনা যায়। এক সন্তানের জননী মেরি ২০১৫ সালে লন্ডনে মৃত্যুবরণ করেন।

জিনাত মোশাররফ
এরশাদের ডজনখানেক বান্ধবীর মধ্যে সবচেয়ে বেশি আলোচনায় আসে জিনাত মোশাররফের নাম। ক্ষমতায় থাকাকালে জিনাতের সঙ্গে এরশাদের পরকীয়া ছিল ওপেন সিক্রেট।

এরশাদের সঙ্গে নামের মিল রেখেই জিনাত মোশাররফ জিনাত হুসেইন নাম গ্রহণ করেছিলেন বলে জানা যায়। তার সঙ্গে পরকীয়া নিয়ে একটি সংবাদপত্রে খোলামেলা সাক্ষাৎকারও দিয়েছিলেন এরশাদ। এরপরই সাবেক মন্ত্রী মোশাররফের সঙ্গে জিনাতের ঘর ভাঙে।

অনেকেই দাবি করেন, ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করলে এরশাদের ইচ্ছাতেই সংরক্ষিত আসনে জিনাতকে সংসদ সদস্য করা হয়। এরশাদের একসময়ের প্রেমিকা জিনাত বর্তমানে স্থায়ীভাবে লন্ডনে বসবাস করছেন বলে জানা যায়। এরশাদের সঙ্গে তার সম্পর্কও বহু আগেই চুকেবুকে গেছে।

বিদিশা সিদ্দিক
বিদিশা সিদ্দিকের সঙ্গে এরশাদের বিয়ের বিষয়টি সবারই জানা। প্রায় ছয় বছরের পুরো জেল জীবনে বিদিশার সাথে চুটিয়ে প্রেম করেন এরশাদ।

২০০০ সালে বিদিশাকে বিয়ে করার বিষয়টি ফাঁস করেন তিনি। সেদিন ছিল তাদের ছেলে এরিকের প্রথম জন্মদিন। বিদিশার সঙ্গে এরশাদের সংসারও বেশিদিন টেকেনি। চার দলীয় জোট সরকারের সময় বিদিশাকে তালাক দিয়ে চুরির মামলায় জেলে পাঠান এরশাদ। বিদিশা বর্তমানে বাংলাদেশেই থাকেন।

এদেশে বেশ কিছু ব্যাবসা বানিজ্যের পাশাপাশি সামাজিক কর্মকাণ্ডেও জড়িত তিনি। রাজনীতি না করলেও এরশাদের জাপার বেশ কিছু প্রভাবশালী নেতার সঙ্গে তার যোগাযোগ আছে। এমনকি তিনি এরশাদের বিভিন্ন রাজনৈতিক ও কূটনৈতিক ব্যক্তিবর্গের সঙ্গে যোগাযোগে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন বলেও দাবি করেন অনেকে।

সাথী
বছর দুয়েক আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নতুন করে এরশাদের প্রেমের গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে। সাথী নামের এক আইনজীবীর সাথে ৮৮ বছর বয়সী এরশাদের ঘনিষ্ট ছবি ছড়িয়ে পড়ে সর্বত্র। তবে এ সম্পর্ক নিয়ে বেশি কিছু জানা সম্ভব হয়নি।

রওশন এরশাদ
এরশাদের প্রথম স্ত্রী রওশন এরশাদ। বহু বছর ধরে তারা আলাদা বাড়িতে বসবাস করলেও আইনগতভাবে এখনও তাদের বিচ্ছেদ হয়নি।

এই দম্পতির সাদ নামের এক সন্তান রয়েছে। তিনি ভারতীয় এক নারীকে বিয়ে করে মালয়েশিয়ায় বসবাস করছেন বলে জানা যায়।

এই সম্পর্কগুলো ছাড়াও একাধিক গায়িকা, নায়িকা, এক সুপারস্টারের মাসহ অনেকের সঙ্গেই স্বৈরশাসক এরশাদের নাম জড়িয়েছিল।

সারাজীবন একের পর এক নারী এরশাদের জীবনে এলেও শেষ বেলায় এসে তিনি একেবারে নিঃস্ব অবস্থায় আছেন বলেই জানা যায়।

http://shamsfood.com/