http://shamsfood.com/

কে হবেন মিস বাংলাদেশ?

অবশেষে চূড়ান্ত পর্বে পৌঁছালো মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ প্রতিযোগিতার দ্বিতীয় আসর। ৩০ সেপ্টেম্বর রাজধানীর বসুন্ধরা কনভেনশন সিটির রাজদর্শন হলে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশের গ্র্যান্ড ফাইনাল
কে হবেন বিশ্ব আসরে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্বকারী সেরা সুন্দরী? এমন প্রশ্নের উত্তর মিলছে রোববার চূড়ান্ত আসরে। এ পর্যন্ত উত্তীর্ণ ১০ প্রতিযোগী হচ্ছেন নিশাত নাওয়ার সালওয়া, মনজিরা বাশার, ইশরাত জাহান সাবরিন, স্মিতা টুম্পা বাড়ৈ, আফরিন সুলতানা লাবণী, সুমনা নাথ অনন্যা, নাজিবা বুশরা, জান্নাতুল মাওয়া, শিরীন শিলা এবং জান্নাতুল ফেরদৌস ঐশী।

আয়োজক অন্তর শোবিজ জানায়, আয়োজনে গুলশান ২ এর নবনির্মিত পাঁচ তারকা হোটেল রয়্যাল প্যারাডাইস এ সেরা ১০ প্রতিযোগীর এর মধ্যেই গ্রুমিং শেষ হয়েছে। ফাইনালের চূড়ান্ত মঞ্চ কাঁপাতে প্রস্তুত তারা।

ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরা’র রাজদর্শন হল থেকে অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচার করবে এটিএন বাংলা।

এবারের আসরে মূল বিচারকের দায়িত্ব পালন করছেন জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী শুভ্রদেব, মডেল ও অভিনেত্রী তারিন, মডেল ও অভিনেতা খালেদ সুজন, মডেল ইমি, ব্যরিস্টার ফারাবী। ফাইনালের আইকন বিচারক হিসেবে থাকছেন মাইলস ব্যান্ডের শাফিন আহমেদ, হামিন আহমেদস এবং আনিসুল ইসলাম হিরু।

অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনার দায়িত্বে আছেন ডিজে সনিকা ও আরজে নিরব।

এবারের আয়োজন প্রসঙ্গে অন্তর শোবিজের চেয়ারম্যান স্বপন চৌধুরী বলেন, “সেপ্টেম্বরের মধ্যেই মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতায় নাম পাঠাতে হয়। তাই আমরা এর মধ্যেই অনুষ্ঠান শেষ করে এনেছি। আর এবার সব প্রস্তুতি দারুন। বিশ্বসেরার মুকুটের জন্য আমরাও দুর্দান্তভাবে লড়তে চাই।”

জানা যায়, ফাইনালে চূড়ান্ত বিজয়ী ৭ ডিসেম্বর চীনে মূল পর্বে যোগদানের উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করবেন। আয়োজক সূত্রে জানা গেছে এবার মূল পর্বের আগে প্রায় তিন মাস সময় পাওয়া যাবে। ফলে চূড়ান্ত বিজয়ীকে তৈরি করার সময় পাওয়া যাবে বেশি। বিশ্বখ্যাত গ্রুমার নয়নিকা চ্যাটার্জী তাকে তৈরি করাবেন। তার হাতেই ১৯৯৬ থেকে একাধিক প্রতিযোগী বিশ্বসুন্দরীর মুকুট জিতেছেন।

এর আগে ২০১৭ সালে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেছেন জেসিয়া ইসলাম। তার আগে বাংলাদেশ থেকে ২০০১ সালে ৫১তম মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছিলেন তাবাসসুম ফেরদৌস শাওন। ১৯৯৪ সালে প্রথম মিস বাংলাদেশ অংশ নেন বিশ্বসুন্দরী প্রতিযোগিতায়। তিনি ছিলেন আনিকা তাহের।

এরপর ইয়াসমিন বিলকিস সাথী (১৯৯৫), রেহনুমা দিলরুবা চিত্রা (১৯৯৬), শায়লা সিমি (১৯৯৮), তানিয়া রহমান তন্বী (১৯৯৯) ও সোনিয়া গাজী (২০০০) মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন।

http://shamsfood.com/