http://shamsfood.com/

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে শেষ মূহুর্তে জমে উঠেছে ঈদ বাজার

bashurhatহাসান ইমাম রাসেলঃ শেষ মূহুর্তে জমে উঠেছে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের প্রান কেন্দ্র বসুরহাটের ঈদ বাজার। ফুটপাত থেকে শুরু করে অভিজাত বিপণি-বিতানগুলোতে বেড়েছে পছন্দের কাপড় কিনতে ক্রেতাদের ভিড় । সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত সপিংমল ও মার্কেটগুলোতে চলছে উৎসব মুখর পরিবেশ। রকমারি ডিজাইন ও বাহারী রঙের পণ্যের পসরা সাজিয়ে বসেছেন দোকানিরা। আকর্ষণীয় পণ্যে ঢেলে সাজানো মার্কেটগুলোতে বেড়েছে ক্রেতা সমাগম। ক্রেতাদের নজর কাড়তে বিভিন্ন দোকানিরা আলোকসজ্জার পাশাপাশি নতুন রঙে সাজিয়ে তুলেছে দোকানগুলি। তবে গত বছরের তুলনায় এবার বেশি দাম হাঁকাচ্ছেন ব্যবসায়ীরা। এমন অভিযোগ ক্রেতাদের। কিন্তু বিক্রেতারা বলছেন, গত বছরের তুলনায় এবার বিক্রি ভালই হচ্ছে। তাদের ব্যবসাও ভালো যাচ্ছে। নিজেদের পছন্দনীয় নিত্য-নতুন ডিজাইনের পোশাক কিনতে এক দোকান থেকে অন্য দোকানে ছুটছেন ক্রেতারা। তবে বসুরহাট জিরো পয়েন্টে নবনির্মিত সপিংমল আরডি সপিং মলেই ক্রেতাদের ভিড় লক্ষনীয়। এছাড়া ঝর্না সপিং সেন্টার, কালা মিয়া ম্যানশান, রুপালী প্লাজা, পৌর মার্কেট,বাবুল ম্যানশানও মসজিদ মার্কেট অন্যতম। উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে ক্রেতারা সকাল হতেই ভিড় জমান বসুরহাটের মার্কেট গুলোতে। Dress_c বিগত বছরের তুলনায় এবার ভারতীয় পণ্যের চাহিদা বেশি। পোশাকের জগতেও এসেছে বৈচিত্র্য। ক্রেতাদের চাহিদার কথা ভেবে ব্যবসায়ীরা ছেলেদের জন্য সর্ট পাঞ্জাবী, ফ্যাশনেবল পাঞ্জাবী ও বিভিন্ন ব্র্যান্ডের শার্ট আর মেয়েদের জন্য ইন্ডিয়ান পাখি লংস্কার্ট, পাখি লেহেঙ্গা,ফ্রোর টাচ, পিউ লংস্কার্ট আকৃষ্ট করছে ক্রেতাদের। ভারতীয় পন্যের পাশাপাশি দেশীয় পন্যেরও ব্যাপক চাহিদা রয়েছে বলে জানান বিক্রেতারা। ঈদের কাপড় কিনতে আরডি সপিং সেন্টারে আসা তানজিমা ও সৃষ্টি জানান, পাখি ড্রেসের কাপড় ও ফ্লোর টাচ আমাদের পছন্দ তাই পাখি লংস্কার্ট ও ফ্লোর টাচ কিনলাম। সপিং মলের এসএ গার্মেন্টসের মালক নাজিম জানান, ভারতীয় পোশাকের চাহিদা এবার শির্ষে তবে দাম একটু বেশী। দোকানগুলোতে মহিলা ক্রেতার সংখ্যা বেশী। পোশাকেরর পাশাপাশি শাগি ও জুতোর দোকানেও ক্রেতাদের ভিড় বেড়েছে।    bashurhat2

http://shamsfood.com/