http://shamsfood.com/

কোম্পানীগঞ্জে প্রতারক জাহেদেরর কান্ড! স্ত্রীর অনুমতি ছাড়া প্রবাসীর স্ত্রীকে বিয়ে!

২য় বিয়ের দিনের ছবি এদিনই গনতার হাতে আটক হলে স্থানীয়রা তাকে বিয়ে করিয়ে দেয়

নোয়াখালী কোম্পানীগঞ্জে মোঃ জাহেদ নামের এক যুবকে বিরুদ্ধে প্রতারনার অভিযোগ এনেছেন তার প্রথম স্ত্রী সিমা ( ছদ্মনাম)। জাহেদ সিরাজপুর ইউনিয়নের কালী বাড়ির লিটন মেম্বারের ছোট ভাই ও মরহুম হাবিবউল্লার ছেলে।
তার বিরুদ্ধে তার স্ত্রির অভিযোগ ২০১২ সালের সেপ্টেম্বও মাসে সে সিমাকে বিয়ে করে। বিয়ের ১ মাস ভালো কাটলেও এরপর থেকে জাহেদ ব্যাবসার নাম কওে সীমার পিতার থেকে ৬ লাখ টাকা ধার নেয় ঐ টাকা দিয়ে ব্যাবসা না করে সে অন্য নারী নিয়ে ফুর্তি করে।
বিয়ের ১ বছর পর জাহেদ একটি ছেলে সন্তানের পিতা হয়। কিন্তু তারপরও সে তার অপকর্ম চালিয়ে যায়। এবার অন্য একটি কাজের কথা বলে সে তার স্ত্রীর ১২ ভরি স্বর্নালংকার নিয়ে যায়। এর পর ঘটনা এতই ভেড়ে যায় যে জাহেদ তার স্ত্রীর অবর্তমানে খারাপ মেয়েদের তাদের বাসায়ও নিয়ে আসে। প্রতিবাদ করলে জাহেদ বলে সে আগে বিএনপি করতো এখন আওয়ামীলীগে যোগ দিছে বেশি বাড়াবাড়ি করলে তার ক্ষতি করবে। তার নাকি অনেক ক্ষমতা! ২০১৬ সালের আগষ্ট মাসের কোন একদিন সে একজন নারী নিয়ে ঘরে পূর্তি করা অবস্থায় তার স্ত্রী ও স্থানীয়দেও কাছে হাতেনাতে ধরা পড়ে,সে সময় পুলিশও এসে তাদেও আটক কওে পরে বাচ্ছাদের মুখের দিকে তাকিয়ে সে তার স্বামীকে পুলিশে নাদিয়ে তাকে ঘর ছেড়ে চলে যেতে বলে। কিন্ত রাগে ক্ষোভে কথাটি বললেও তার স্ত্রি চেয়েছে সে হয়তো ভালো হয়ে ফিরে আসবে।

বিয়ে পড়ানোর ছবি

এর পরও জাহেদ ঘটনায় অনুতপ্ত না হয়ে গত ৪/৫ দিন আগে এক প্রবাসির স্ত্রীকে নিয়ে ফের জনতার হাতে আটক হলে তারা তাকে তাৎক্ষনিক বিয়ে পড়িয়ে দেয়। কিন্তু জাহেদ বিবাহিত ছিল সেকথাটি সে লুকিয়ে রাখে। জানা যায় জাহেদের কারনে সেই প্রবাসিও তার স্ত্রিকে ঘর থেকে বের করে দেয়। এদিকে এ ঘটনা শোনার পর জাহেদের স্ত্রী তার অনমতি না নিয়ে ২য় বিবাহ করায় নোয়াখালী নারী শিশু আদালতে তার বিচার দাবী করে একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নেয়।
অপরদিকে অভিযুক্ত জাহেদের মুঠোফোনে বারবার কল দিয়েও তাকে পাওয়া যায়নি।

http://shamsfood.com/